1. admin@snb24bd.com : admin :
রবিবার, ১৭ অক্টোবর ২০২১, ০৯:০৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
দীর্ঘ ৩ যুগ ধরে মসজিদের ইমামতি করে কৈখাইড় গ্রামবাসীর ভালবাসায় সিক্ত মাওলানা মোঃ জয়নুল আবেদীন খান (মানিক) নবীগঞ্জে পূজামন্ডপের সামনে দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ওসিকে দেখতে বাংলাদেশ জাতীয় সাংবাদিক ফোরাম (BNJF) নেতৃবৃন্দ সুনামগঞ্জ সদর ও শান্তিগঞ্জ উপজেলায় ১৭ ইউনিয়নের নির্বাচন ২৮ নভেম্বর হবিগঞ্জ জেলা দুইটি উপজেলাতে ২১ টি ইউনিয়ন নির্বাচন ২৮ নভেম্বর সিলেটে তিনদিনে মৃত্যু নেই করোনায়: শনাক্ত ৩ দৃষ্টিপাত সম্পাদকের সহধর্মিনীর ও পত্রিকার প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে শ্যামনগরে দোয়া অনুষ্ঠিত শায়েস্তাগঞ্জে মাদকসহ দুই ভাই গ্রেপ্তার সিংড়ায় জাতীয় শ্রমিকলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত কলেজ ছাত্রলীগের নেতৃত্বের তুঙ্গে আরিফুল ইসলাম গোমস্তাপুরে নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের উচ্চ মূল্য,সংসার চালাতে হিমশিম খাচ্ছে মধ্যবিত্ত শ্রেণীর মানুষ

ট্রাফিক পুলিশের ওপর বিরক্ত হয়ে নিজের বাইকেই আগুন দিলেন পাঠাও চালক

এসএনবি ডেস্ক
  • সময় : সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ২৯ বার পঠিত
সংবাদটি শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এসএনবি নিউজ ডেস্কঃ ট্রাফিক পুলিশের ওপর বিরক্ত হয়ে নিজের মোটরসাইকেলে পেট্রল দিয়ে আগুন ধরিয়ে দিয়েছেন পাঠাও চালক।

সোমবার সকালে রাজধানীর বাড্ডা লিংক রোড এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে। বাইক পোড়ানোর সেই ঘটনায় পথচারীরা ভিডিও করে ফেসবুকে ছেড়ে দিয়েছেন, যা ছড়িয়ে পড়েছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে।

ভিডিওতে দেখা যায়, ফুটপাতের পাশের ড্রেনঘেঁষে দাঁড় করানো মোটরসাইকেলটি দাউ দাউ করে জ্বলছে। ওই মোটরসাইকেলচালক ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া দেখাচ্ছেন। রাস্তায় এদিক-ওদিকে চিৎকার করে কিছু একটা বলছেন। একসময় হাতে থাকা হেলমেটটি জ্বলতে থাকা মোটরসাইকেলের ওপর ছুড়ে মারেন। এ সময় আশপাশের লোকজন আগুন নেভানোর চেষ্টা করলেও তিনি বাধা দেন। আগুন নেভাতে মগে করে পানি নিয়ে আসেন এক যুবক। তবে তাকে বাধা দেন পাঠাও চালক।

প্রত্যক্ষদর্শীরা ও বাড্ডা থানা পুলিশ জানিয়েছে, পুড়ে যাওয়া মোটরসাইকেলটির মালিকের নাম শওকত আলী। ট্রাফিক পুলিশ তার থেকে বাহনের কাগজপত্র ও লাইসেন্স দেখতে চাইলে এ নিয়ে বাদানুবাদ হয়। একপর্যায়ে ক্ষুব্ধ হয়ে শওকত আলী নিজেই পেট্রল দিয়ে নিজের মোটরসাইকেলে আগুন ধরিয়ে দেন। পরে তাকে পুলিশ বাড্ডা থানায় নিয়ে গেলেও ছেড়ে দেওয়া হয়।

জানা গেছে, ছোট দোকান চালিয়ে সংসার চালাতেন শওকত আলী। করোনায় ব্যবসাটিও বন্ধ হয়ে যায়। তাই বাধ্য হয়ে গত কয়েক মাস ধরে মোটরসাইকেলে রাইড শেয়ার করে সংসার চালাচ্ছিলেন তিনি।

গুলশান ট্রাফিক বিভাগের উপকমিশনার রবিউল ইসলাম বলেন, ‘মোটরসাইকেলগুলো রাস্তার পাশে এমনভাবে দাঁড় করিয়ে রাখে, এতে গাড়ি চলাচলে প্রতিবন্ধকতা তৈরি হয়। গুলশানের লিংক রোডে যানজটের সৃষ্টি হয়। তাই দায়িত্বরত পুলিশ সার্জেন্ট মোটরসাইকেলচালকদের কাগজপত্র নেন। আর সবার মতো শওকত আলীরও কাগজপত্র চেক করতে চায় দায়িত্বরত পুলিশ। তার কাগজপত্র নেওয়া হলেও তার মোটরসাইকেলের বিরুদ্ধে কোনো মামলা দেওয়া হয়নি। মামলা দেওয়ার আগেই তিনি গাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেন।’

বাড্ডা থানার ওসি আবুল কালাম আজাদ বলেন, ‘বাইক পোড়ানোর ঘটনা জানার সঙ্গে সঙ্গে শওকত আলীকে থানায় এনে এ সম্পর্কে জানার চেষ্টা করি। আটকের উদ্দেশ্যে নয়; থানায় এসে তিনি আমাকে জানিয়েছেন— আগেও কয়েকটি মামলা হয়েছে তার গাড়ির বিরুদ্ধে। আজকে যখন পুলিশ তার কাগজপত্র নিয়েছে, তখন তিনি হতাশায় নিজের গাড়িতে আগুন দিয়েছেন। তার কাগজপত্র নেওয়া হলেও তার মোটরসাইকেলের বিরুদ্ধে কোনো মামলা দেওয়া হয়নি। মামলা দেওয়ার আগেই তিনি গাড়িতে আগুন ধরিয়ে দিয়েছেন।’


সংবাদটি শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© All rights reserved © ২০২১ SNB 24 BD
Theme Customized BY Theme Park BD