1. admin@snb24bd.com : admin :
শুক্রবার, ২২ অক্টোবর ২০২১, ১২:২১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
বানিয়াচংয়ে থানা পুলিশের বিশেষ অভিযানে পরোয়ানাভুক্ত পলাতক ৫ আসামী গ্রেফতার আসন্ন কুর্শি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আবু তালিম চৌধুরী নিজামকে নৌকার মাঝি হিসাবে পেতে চাই-জনগণ মৌলভীবাজারে মাদকসহ একাধিক মামলার আসামি গ্রেফতার শ্যামনগরে অসহায় মানষুরে মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেন রমজানগর ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থী-রাজ শ্যামনগরে বিশেষ আইন শৃঙ্খলা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত নবীগঞ্জ প্রেস ক্লাবের নির্বাহী সদস্য সাবেক সভাপতি তোফাজ্জল হোসেনের পদত্যাগ চুনারুঘাটে আরিফের মৃত্যুতে শোকের ছায়া: সড়ক কেড়ে নিল ৪ যুবকের প্রাণ আজমিরীগঞ্জের ৫ ইউনিয়নে ২৫৮ প্রার্থীর মনোনয়ন দাখিল নবীগঞ্জ উপজেলার ৬নং কুর্শি ইউনিয়ন কৃষক লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত নবীগঞ্জে ৩নং ইনাতগঞ্জ ইউনিয়নে আলোচনায় যুবলীগ সভাপতি সাংবাদিক আশাহিদ আলী আশা

নবীগঞ্জের ভুবিরবাকে সেতু আছে রাস্তা নেই ; কার জন্য ৩০ লাখ টাকা ব্যয়ে এই সেতু

এসএনবি ডেস্ক
  • সময় : বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ৯৮ বার পঠিত
সংবাদটি শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নবীগঞ্জ প্রতিনিধিঃ হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলার ভুবিরবাক সড়কের পাশে মরা কুশিয়ারা খালের উপর একটি সেতু নির্মাণ করা হয়েছে আড়াই বছর আগে।

সেতুটি অনেক আগে নির্মাণ করা হলেও সেতুটির প্লেটের মধ্যে উল্লেখ করা হয়েছে ভুবিরবাক কলেজ রাস্তায় মসজিদের নিকট সেতু নির্মাণ।

মুলত ভুবিরবাক গ্রামের মসজিদের নিকট সেতুটি কলেজের সঙ্গে সংযোগ সড়ক না থাকার ফলে সেতুটি কোনো কাজেই আসছে না বরং সেতুর সংযোগ রয়েছে একটি বাড়ির সঙ্গে তাই প্রতিদিন সহস্রাধিক মানুষ শিকার হচ্ছেন চরম দুর্ভোগের।

সরেজমিনে সেতুটি পার হয়ে দেখা গেল ভিন্ন চিত্র। সেতুর সামনে প্লেটের লাগানো ভুবিরবাক কলেজ রাস্তা লেখা থাকলেও এটি একটি বাড়ির রাস্তা সামনে কথা হয় বাড়ির এক মহিলার সঙ্গে তিনি জানান, এই সেতু পার হয়ে একমাত্র বাড়ির রাস্তা অন্য কোন রাস্তার সঙ্গে এই সেতুর সংযোগ নেই। এছাড়াও এ বাড়ির সঙ্গে মৃত সাজিদ উল্লাহ ও মাতাব আলীর ঘর থাকলেও তাদেরকে সেতুটি ব্যবহার করতে দেওয়া হচ্ছে না দীর্ঘদিন ধরে।

বাড়ির সঙ্গে সংযোগ সেতুটি নির্মাণে ৩১ লাখ ৬১ হাজার ১ শত ৪৭ টাকা ব্যয়ে নির্মিত ব্রিজটি অব্যবহৃত অবস্থায় পড়ে থাকলেও এ দিকটায় নজর দেওয়ার মতো কেউ নেই।

জানা গেছে, সংযোগ সেতুটি দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও অধিদপ্তরের সেতু /কালভার্ট নির্মাণ কর্মসূচি ২০১৮-২০১৯ সালে উপজেলার কুর্শি ইউনিয়নের ভুবিরবাক গ্রামে মরা কুশিয়ারা খালের উপর সেতুটি নির্মাণ করা হয়েছে।

সেতুটিতে প্রস্তাবিত প্রকল্পে ৩১ লাখ ৬১ হাজার ১শত ৪৭ টাকা উল্লেখ করলেও চুরান্ত ব্যয় ধরা হয়েছে ৩০ লাখ ৩ হাজার ৯০ টাকা।

৩৮ মিটার দৈর্ঘ্যরে সেতুটি এক বছরের মধ্যেই কাজ শেষ করা হয়।

বছরের পর বছর অব্যবহৃত থেকে সেগুলো নষ্ট ও পরিত্যক্ত হয়ে গেছে। জনগণের করের অর্থের এমন অপচয় কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য হতে পারে না।

প্রশ্ন হচ্ছে, এসব সেতু নির্মাণ করা হয়েছে কার বা কাদের স্বার্থে? উন্নয়নের নামে মূলত স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও অসাধু কিছু কর্মকর্তার পকেট ভারি করার জন্যই সেতু নির্মাণের এমন প্রকল্প গ্রহণ করা হয়ে থাকে। এমনও দেখা গেছে, মরা খাল ও খাড়ির উপর নির্মিত সেতুগুলো আসলে কালভার্ট; কিন্তু এগুলোকে সেতু হিসাবে দেখিয়ে দ্বিগুণ বরাদ্দ পাশ করিয়ে নেওয়া হয়েছে। এসব বিষয় তদন্তের দাবি রাখে।

যে কোনো সেতু নির্মাণের প্রকল্প হাতে নেওয়ার আগে তা জনগণের কতটা উপকারে আসবে এবং সার্বিক উন্নয়নে কতটুকু ভূমিকা রাখবে, সে বিষয়ে নিশ্চিত হওয়া প্রয়োজন। এটা অজানা নয়, সব সরকারের আমলেই একশ্রেণির কর্মকর্তা ঘাপটি মেরে থাকে বিভিন্ন প্রকল্প বের করে কমিশন আদায় করার জন্য।

এরাই স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও ঠিকাদারদের সঙ্গে আঁতাত করে টাকা ভাগাভাগি করে নেয়। অতীতে বিভিন্ন সময়ে পার পেয়ে যাওয়ায় এসব কর্মকাণ্ডে তাদের উৎসাহে ভাটা পড়ে না।

আমরা মনে করি, সেতু, কালভার্ট ও সড়ক উন্নয়নের যে কোনো প্রকল্প পাশ করানোর আগে সেটা কতটা জনকল্যাণে আসবে তা নিরূপণ করতে হবে। একইসঙ্গে প্রকল্পটির সম্ভাব্যতাও যাচাই করা দরকার। দ্বিতীয়ত, প্রকল্প পাশ হওয়ার পর তা নিয়মমাফিক নির্মিত হচ্ছে কিনা, তা-ও দেখভালের দায়িত্ব সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের।


সংবাদটি শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© All rights reserved © ২০২১ SNB 24 BD
Theme Customized BY Theme Park BD